রােমে ক্রীতদাসদের মুক্তির উপায় সম্পর্কে আলােচনা করো।( একাদশ শ্রেণির বিষয় ইতিহাস)

একাদশ শ্রেণি বিষয় ইতিহাস একাদশ শ্রেণি, বিষয় ইতিহাস বড়ো প্রশ্ন এবং উত্তর

অর্থনীতির বিভিন্ন দিক

০ বর্ণনাধর্মী প্রশ্নোত্তর :
১। রােমে ক্রীতদাসদের মুক্তির উপায় সম্পর্কে আলােচনা করো।

উ: রােমে ক্রীতদাসদের অধিকাংশই শশাষণ নির্যাতন, সীমাহীন পরিশ্রম, অনাহার, অর্ধাহার অত্যাচার, নির্যাতন, হত্যার অভিজ্ঞতাই সঞ্চয় করত। ফলে কখনাে কখনাে তারা বিদ্রোহের পথে পা বাড়াত। খ্রিস্টপূর্ব দ্বিতীয় শতক থেকে রােমান সাম্রাজ্যে ক্রীতদাস বিদ্রোহ শুরু হয়। প্রথম, দ্বিতীয়, তৃতীয় কৃতদাস বিদ্রোহের পর রােমান সম্রাট ক্রীতদাসদের কিছু কিছু অধিকারের স্বীকৃতি দেন।

সম্রাট নিরাে প্রভুর অন্যায়ের বিরুদ্ধে ক্রীতদাসকে আদালতে অভিযােগ জানানাের অধিকার দেন। প্রভুর অধীনে বন্দী অবস্থায় বার্ধক্যের ও রােগভােগে জরাজীর্ণ হয়ে এক সময় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ত তারা। তবে কোনাে কোনাে ক্ষেত্রে ক্রীতদাস তার দাসত্বের জীবন থেকে মুক্তি ও লাভ করতে পারত। মুক্তিপ্রাপ্ত ক্রীতদাস
লিবারটাস নামে পরিচিত ছিল মুক্তিপ্রাপ্ত ক্রীতদাসদের মস্তকে মুক্তির প্রতীক হিসাবে বিশেষ আচ্ছাদন পরাননা হত।

মুক্তিপ্রাপ্ত ক্রীতদাসটি পূর্বতন প্রভুর পৃষ্ঠপােষকতা লাভ করত। মুক্তি পাবার পর তার সন্তান রােমের স্বাধীন নাগরিকের মর্যাদা লাভ করত। রােমান সিনেটের অনুমােদন ক্রমে সেখানকার ম্যাজিস্ট্রেট কোন কোন ক্রীতদাসকে মুক্তি দিতে পারত। কোন বিপদ শঙ্কুল পরিস্থিতি থেকে নিজের জীবন বিপন্ন করে যদি প্রভুর প্রাণ বাঁচায় তবে প্রভু তার প্রাণ রক্ষাকারী ক্রিতদাসটির প্রতি সদয় হয়ে তাকে দাসত্ব থেকে মুক্তি দিত।’
সারা জীবন’বহু পরিশ্রম করে কোনাে কোনাে দাস বেশকিছু অর্থ সঞ্চয় করত। এই সঞ্চিত অর্থ প্রভুকে এককালীন অর্থে
দিলে প্রভু অনেকবেশি লাভবান হত। ক্রীতদাসটি তার প্রভুকে এরূপ বিপুল পরিমাণ আর্থিক ক্ষতি পূরণ দিয়ে তার আধীনতা থেকে মুক্তি ক্রয় করতে পারত। কোনাে কোনাে ‘ক্রীতদাস তার প্রভুর অত্যন্ত বিশ্বস্ত সেবক হিসাবে ‘দীর্ঘকাল ধরে তার প্রভুর সেবাযত্ন করে প্রভুর প্রিয়পাত্র হয়ে উঠত। সেই সেবাযত্নের পুরস্কার হিসাবে
কখনাে কখনাে প্রভু তার অধীনস্থ ক্রীতদাসকে দাসত্ব থেকে মুক্তি দিত।

প্রাচীন রােমে ‘গ্ল্যাডিয়েটরের লড়াই নামক একটা অমানবিক লড়াই প্রচলিত ছিল। ক্ষুধার্ত বাঘ, সিংহের সঙ্গে ক্রীতদাসরা ‘লড়াই করত। যদি তারা জয়ী হত তাহলে ক্রীতদাসটির প্রভু খুশী হয়ে তাকে মুক্তি দিত। প্রভুর প্রতি গভীর আনুগত্যর ফলস্বরূপ অধীনস্থ ক্রীতদাস মুক্তি পেত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *