POLITICAL SCIENCE (রাষ্ট্রবিজ্ঞান) SHORT QUESTION & ANSWER (HS-2018)

(রাষ্ট্রবিজ্ঞান) SHORT QUESTION & ANSWER

(রাষ্ট্রবিজ্ঞান) SHORT QUESTION & ANSWER
(রাষ্ট্রবিজ্ঞান) SHORT QUESTION & ANSWER
[sc name=”c2pss”]

নিম্নলিখিত প্রশ্নগুলির অতিসংক্ষিপ্ত উত্তর দাও(বিকল্প প্রশ্নগুলি লক্ষণীয়)


১। SEATO কথার পূর্ণরূপ কী?
উঃ- SEATO কথার পূর্ণরূপ হল—South East Asia Treaty Organisation

২। NAMএর একটি নীতি উল্লেখ করাে।
উঃ—জোটনিরেপেক্ষ আন্দোলনের অন্যতম একটি নীতি হল সদস্য রাষ্ট্রগুলি বহৎ শক্তির পারস্পরিক বিরােধের পরিপ্রেক্ষিতে গড়ে ওঠা কোনাে বহুপাক্ষিক সামরিক জোটের সদস্য হতে পারে না।

অথবা, জোটনিরপেক্ষ আন্দোলনের অন্যতম দুইজন মুখ্য প্রবক্তার নাম করাে।
উঃ—জোটনিরপেক্ষ আন্দোলনের অন্যতম দুইজন মুখ্য প্রবক্তা হলেন জওহরলাল নেহরু ও গামাল আবদেল নাসের।

৩। দ্বিমেরুকরণ কাকে বলে?
উঃ-মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে পুজিবাদী শিবির ও সােভিয়েত ইউনিয়নের নেতৃত্বে সমাজতান্ত্রিক শিবিরের মধ্যে গােটা বিশ্বব্যাপী যে মতাদর্শগত সংগ্রাম শুরু হয়েছিল তাকেই দ্বিমেরুকেন্দ্রিক রাজনীতি বা দ্বিমেরুকরণ বলা হয়।

৪। ভারতের বিদেশনীতির প্রধান কী ?
উঃ- ভারতের বিদেশনীতির প্রধান স্তম্ভ হল জোটনিরপেক্ষতা।

অথবা, যে কোনাে একটি পঞ্চশীল নীতি উল্লেখ করাে।
উঃ-পঞ্চশীলের অন্যতম একটি নীতি হল অন্য রাষ্টের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করা।

৫। কয়টি সদস্যরাষ্ট্র নিয়ে SAARC গঠিত হয়েছিল?
উঃ—সাতটি সদস্য রাষ্ট্র নিয়ে SAARCগঠিত হয়েছিল।

৬। BRICS-কী ?
উঃ—BRICS হল ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত চিন ও দক্ষিণ আফ্রিকাকে নিয়ে গঠিত উন্নয়নশীল দেশগুলির জাতীয় অর্থনীতি বিকাশের একটি সংস্থা।

অথবা, G-77 বলতে কী বােঝাে?
উঃ- G-77হল সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের একটি সংস্থা। উন্নয়নশীল দেশগুলির অর্থনৈতিক ও বানিজ্যক স্বার্থরক্ষার উদ্দেশ্যে ১৯৬৪ সালে এটি গঠন করা হয়।

৭। সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের স্থায়ী সচিবালয় কোথায় অবস্থিত ?
উঃ নিউইয়র্কে সম্মিলিত জাতিপুঞ্জের স্থায়ী সচিবালয় অবস্থিত।

অথবা,আতলান্তিক সনদ কত সালে স্বাক্ষরিত হয়?
উঃ—আতলান্তিক সনদ স্বাক্ষরিত হয় ১৯৪১ সালে।

৮। নিরাপত্তা পরিষদের একটি দুর্বলতা উল্লেখ করাে ?
উঃ—অনেকে মনে করেন বৃহৎ রাষ্ট্রগুলির ভেটো ক্ষমতার জন্য ওইসব রাষ্ট্রের স্বার্থ জড়িত আছে এমন ক্ষেত্রে নিরাপত্তা পরিষদ কোনাে কার্যকারী সিদ্ধান্ত নিতে পারে এটি নিরাপত্তা পরিষদের অন্যতম দুর্বলতা।

9। অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের দুটি বিশেষজ্ঞ সংস্থার নাম লেখাে
উঃ—অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের দুটি বিশষজ্ঞ সংস্থার নাম হল-১)আন্তর্জাতিক শ্রম সংখ্যা(ILO) (২) বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)।

১০। আন্তর্জাতিক আদালতের বিচারপতির সংখ্যা কত?
উঃ-আন্তর্জাতিক বিচারালয়ের বিচার পতির সংখ্যা ১৫।

১১-Spirit of Laws গ্রন্থটি কার লেখা।
উঃ-Spirit ofLaws গ্রন্থটি মতেঙ্কুর লেখা।

১২। অর্পিত ক্ষমতাপ্রসূত আইন -এর সংজ্ঞা দাও ?
উঃ—আইনসভা অনেক সময়ে নানা কারণে কোনাে আইনের মূল কাঠামাে তৈরি করে তার পুঙ্খানুপুঙ্খ রূপায়নের দায়িত্ব দেয় শাসন বিভাগকে।শাসন বিভাগ যখন এই ক্ষমতাবলে সংশ্লিষ্ট বিষয় আইন প্রণয়ন করে তখন তাকে বলে অর্পিত ক্ষমতাপ্রসূত আইন।

অথবা,আমলাতন্ত্র বলতে কী বোেঝ ?
উঃ-রাষ্ট্রের প্রসাশনিক কাজে স্থায়ীভাবে নিযুক্ত কর্মীরা তাঁদের রাষ্ট্রকৃত্যক বা রাষ্ট্রভৃত্যম বলা হয় তাঁরা হলেন প্রশাসনের অরাজনৈতিক অকাজ।এঁদের পরিচালিত প্রশাসনই হল আমলাতন্ত্র।

১৩। ভারতের উপরাষ্ট্রপতি কীভাবে নির্বাচিত হয় ?
উঃ-পার্লামেন্টের উভয় কক্ষের সদস্যদের নিয়ে গঠিত একটি নির্বাচন মন্ডলীর দ্বারা একক হস্তান্তরযােগ্য ভােটের ভিত্তিতে সমানুপাতিক প্রতিনিধিত্বের নিয়ম অনুযায়ী ভারতের উপরাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন।

অথবা,রাজ্যপাল পদের একটি যােগ্যতা লেখাে।
. উঃ—অন্তত ৩৫ বছর বয়স হতে হবে রাজ্যপাল পদে নিযুক্ত হওয়ার জন্য।

১৪। ভারতের প্রধান মন্ত্রীর যে কোনাে দুটি ক্ষমতার উল্লেখ করাে।
উঃ- ভারতের প্রধানমন্ত্রীর অন্যতম দুটি ক্ষমতা হল(১)মন্ত্রীদের নিয়ােগ বা পদচ্যুতির বিষয়ে তিনিই সিদ্ধান্ত নেন।তাঁর পরামর্শ অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি মন্ত্রীদের নিয়ােগ বা পদচ্যুতকরেন।(২)লােকসভার নেতা হিসাবে লােকসভার অধিবেশন সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত তিনিই নেন।

১৫। ওয়ার্ড কমিটি কী?
উঃ—পৌরসভার প্রতিটি ওয়ার্ডে একটি করে ওয়ার্ড কমিটি গঠন করা বাধ্যতামূলক।সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডের নির্বাচিত কাউন্সিলর ও পৌরসভা কর্তৃক মনােনীত অন্যান্য কয়েকজন সদস্য নিয়ে এই ওয়ার্ড কমিটি গঠিত হয়।

অথবা,পশ্চিমবঙ্গের পৌরসভাগুলির আয়ের দুটি উৎস উল্লেখ করাে।
উঃ—পৌরসভার আয়ের দুটি অন্যতম উৎস হল -ক) কর অভিকর বাজার প্রভৃতি থেকে অর্জিত আয় খ) রাজ্য সরকার থেকে প্রাপ্ত অনুদান। •

১৬। ক্ষুদ্র জেলাশাসক কাকে বলে ?
উঃ—সাব ডিভিশনাল অফিসার (সিভিল) বা SDO কে ক্ষুদ্র জেলাশাসক বলা হয়।

অথবা- ন্যায় পঞ্চায়েত বলতে কী বােঝায়?
উঃ- ১৯৭৩ সালের পঞ্চায়েত আইন অনুসারে রাজ্য সরকারের ঘােষনা সাপেক্ষে গ্রাম পঞ্চায়েত পাঁচজন সদস্য নিয়ে ন্যায় পঞ্চায়েত গঠন করতে পারে।সদস্যরা বিচারক অভিহিত হন।সর্বাধিক ২৫০ টাকা জরিমানা হতে পারে এমন দেওয়ানি মামলা ও সর্বাধিক ৫০ টাকা জরিমানা হতে পারে এমন ফৌজদারি মামলার বিচার করতে পারে ন্যায় পঞ্চায়েত।


Posts not found


 

[sc name=”last”]

RECENT POST

LATEST POST