Madhyamik History Suggestion 2022 | মাধ্যমিক ইতিহাস সাজেশন ২০২২ [PDF]

Madhyamik History Suggestion 2022, প্রথম অধ্যায় থেকে অষ্টম পঞ্চম অধ্যায় প্রজন্ত সমস্ত সাজেশন

প্রথম অধ্যায় 

(প্রশ্নমান ৪)

১। নারী ইতিহাসের উপর একটি টীকা। [উত্তর:click here]

২। গরিবেশের ইতিহাসচর্চার ওপর একটি সংক্ষিপ্ত টীকা লেখো। [উত্তর]

৩। আধুনিক ‘ভারত ইতিহাসের উপাদানরূপে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আত্মজীবনী ‘জীবনস্মৃতি গুরুত্বপূর্ণ কেন? [উত্তর]

৪। নতুন সামাজিক ইতিহাসের উপর একটি টিকা লেখাে।
অথবা, আধুনিক ইতিহাসচর্চার বৈচিত্র্যের দিকটি সংক্ষেপে আলােচনা [উত্তর]

 দ্বিতীয় অধ্যায় 

(প্রশ্নমান ৪)

১। স্বামী বিবেকানন্দের ধর্ম সংস্কারের আদর্শ ব্যাখ্যা করো? [উত্তর]

২। হুতোম প্যাঁচার নকশা গ্রন্থে উনিশ শতকের বাংলার কিরূপ সমাজ চিত্র পাওয়া যায়? [উত্তর]

৩। এদেশের চিকিৎসা – বিদ্যার ক্ষেত্রে কলকাতা মেডিকেল কলেজের কী ভূমিকা ছিল? [উত্তর]

৪। গাশ্চাত্য শিক্ষার বিস্তারে রাজা রামমোহন রায়ের ভূমিকা উল্লেখ করো। [উত্তর]

৫। নারীশিক্ষা প্রসারে ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের অবদান সংক্ষেপে আলােচনা করাে। [উত্তর]

৬। “গ্রামবার্তা প্রকাশিকা’য় উনিশ শতকের বাংলার গ্রামীণ সমাজের কীরূপ ছবি ফুটে উঠেছে? [উত্তর]

৭। বামাবােধিনী পত্রিকা কিভাবে নারীসমাজের মুখপত্রে পরিণত হয়েছিল? [উত্তর]

(প্রশ্নমান ৮)

১। শিক্ষা বিস্তারে প্রাচ্যবাদী ও পাশ্চাত্যবাদী বিতর্ক কী? উচ্চশিক্ষার বিকাশে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূমিকা আলােচনা করাে। [উত্তর]

২। উনিশ শতকের বাংলায় সমাজ সংস্কার আন্দোলনে ব্রাম্মসমাজগুলির কীরূপ ভূমিকা ছিল ? [উত্তর]

 তৃতীয় অধ্যায় 

(প্রশ্নমান ৪)

১। ১৮৫৫ খ্রিস্টাব্দে সাওতালরা বিদ্রোহ করেছিল কেন? [উত্তর]

২। কী উদ্দেশ্যে ঔপনিবেশিক সরকার তারণ্য তাইিন প্রণয়ন করেন? [উত্তর]

৩। টীকা লেখাে : ফরাজি আন্দোলন। [উত্তর]

৪। টীকা লেখাে: তিতুমিরের নেতৃত্বে বারাসাত বিদ্রোহ। [উত্তর]

(প্রশ্নমান ৮)

১। নীল বিদ্রোহ কেন ঘটেছিল? এই বিদ্রোহের বৈশিষ্ট্য বিশ্লেষণ করাে। ৩+৫ [উত্তর:]

 চতুর্থ অধ্যায় 

(প্রশ্নমান ৪)

১। হিন্দুমেলার উদ্দেশ্য কী ছিল? | হিন্দুমেলার টীকা লেখাে। [উত্তর]

২। ১৮৫৭-এর মহাবিদ্রোহকে কি সামন্তশ্রেণির বিদ্রোহ বলা যায় ? [উত্তর]

৩। আনন্দমঠ উপন্যাসটি কীভাবে জাতীয়তাবাদী চেতনা বিস্তারে সহায়তা করেছিল? [উত্তর]

৪। মহারাণীর ঘােষণাপত্রের ঐতিহাসিক তাৎপর্য কী? [উত্তর]

৫। ‘গোরা’ উপন্যাসটি.কীভাবে জাতীয়তাবাদী চেতনা বিস্তারে সহায়তা করেছিল? [উত্তর]

৬। বর্তমান ভারত’ কীভাবে জাতীয়তাবাদী চেতনাবিস্তারে সহায়তা করেছিল? [উত্তর]

৭। গগনেন্দ্রনাথ ঠাকুরের ব্যঙ্গচিত্র কীভাবে জাতীয়তাবাদী চেতনা বিস্তারে সহায়তা করেছিল? [উত্তর]

৮। অবনীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘ভারতমাতা’ চিত্র কীভাবে জাতীয়তাবাদী চেতনা বিস্তারে সহায়তা করেছিল? [উত্তর]

(প্রশ্নমান ৮)

১। সংক্ষেপে মহাবিদ্রোহের (১৮৫৭) চরিত্র বিশ্লেষণ করো। [উত্তর]

২। উনিশ শতকে লেখা ও রেখার মাধ্যমে কীভাবে ভারতে জাতীয়তাবাদের জাগরণ ঘটেছে? [উত্তর]

 পঞ্চম অধ্যায় 

(প্রশ্নমান ৪)

১। বাংলায় কারিগরি শিক্ষার বিকাশে ‘বেঙ্গল টেকনিক্যাল ইনস্টিটিউটের কী ভূমিকা ছিল ? [উত্তর]

২। শ্রীরামপুর মিশন গ্রো কীভাবে একটি অগ্রণী মুদ্রণ গ্রডিষ্ঠানে পরিণত হলো ? [উত্তর]

৩। বাংলায় মুদ্রণ শিল্পের বিকাশে উপেন্দ্রকিশাের রায়চৌধুরির কীরূপ অবদান ছিল ? [উত্তর]

৪। বিজ্ঞানচর্চার বিকাশে ‘কলকাতা বিজ্ঞান কলেজের কীরূপ ভূমিকা ছিল ? [উত্তর]

৫। বিজ্ঞানচর্চার বিকাশে ‘বসু বিজ্ঞান মন্দির’-এর কীরূপ ভূমিকা ছিল? [উত্তর]

৬। ছাপাবই-এর সঙ্গে শিক্ষাবিস্তারের সম্পর্ক বিশ্লেষণ করাে। [উত্তর]

৭। বাংলায় বিজ্ঞান চর্চার বিকাশে ড.মহেন্দ্রলাল সরকারের কিরূপ অবদান ছিল? [উত্তর]

অথবা, টীকা লেখাে : “ইন্ডিয়ান অ্যাসােসিয়েশন ফর ‘দ্যা কাল্টিভেশন অব সায়েন্স। [উত্তর]

৮। টীকা লেখাে : জাতীয় শিক্ষা পরিষদ। [উত্তর]

(প্রশ্নমান ৮)

১। ঔপনিবেশিক বাংলায় বিজ্ঞান ও কারিগরি শিক্ষার বিকাশের সংক্ষিপ্ত পরিচয় দাও। [উত্তর]

 ষষ্ঠ অধ্যায় 

১। টীকা লেখাে : একা আন্দোলন। [উত্তর]

২। সারাভারত কিষান সভা কী উদ্দেশ্যে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল? [উত্তর]

৩। টীকা লেখাে : কংগ্রেস সমাজতন্ত্রী দল। [উত্তর]

৪। অহিংস অসহযােগ আন্দোলনে কৃষক সমাজ কীভাবে অংশগ্রহণ করেছিল? [উত্তর]

৫। টীকা লেখাে : মিরাট ষড়যন্ত্র মামলা। [উত্তর]

(প্রশ্নমান ৮)

৬।  ভারত ছাড়াে আন্দোলনে শ্রমিকদের ভূমিকা বিশ্লেষণ করাে। ওয়ার্কার্স অ্যান্ড গেজেন্টস্ পার্টি সম্পর্কে একটি টীকা লেখো। ৫ +৩ ] [উত্তর]


সপ্তম অধ্যায়: বিংশ শতকের ভারতে নারী, ছাত্রী, প্রান্তিক জনগােষ্ঠীর আন্দোলন – বৈশিষ্ট্য ও পর্যালােচনা গঠন হল –

১. বহুবিকল্পভিত্তিক প্রশ্নোত্তর : প্রশ্নমান-১

১। প্রথম যিনি বয়কটের ডাক দিয়েছিলেন।
ক) সতীশচন্দ্র মুখােপাধ্যায়
খ) কৃষ্ণ কুমার মিত্র
গ) শচীন্দ্রপ্রসাদ বসু
ঘ) রামেন্দ্রসুন্দর ত্রিবেদী

২। ভারত “স্ত্রী মহামণ্ডল” স্থাপিত হয়েছিল –
ক) ১৯০৭ খ্রিস্টাব্দে  খ) ১৯১০ খ্রিস্টাব্দে
গ) ১৯১২ খ্রিস্টাব্দে   ঘ) ১৯১৫ খ্রিস্টাব্দে

৩। নারী সত্যাগ্রহ সমিতি গড়ে তুলেছিলেন –
ক) বাসন্তী দেবী   খ) লীলা নাগ
গ) কল্পনা দত্ত    ঘ) প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার

৪। গান্ধিজি যখন ডান্ডি অভিযান করেছিলেন তখন মােট স্বেচ্ছাসেবীর সংখ্যা ছিল –
ক) ৭৫ জন
খ) ৭৮ জন
গ) ৮০ জন
ঘ) ৮২ জন

৫। ভারতের প্রথম ছাত্রী।
ক) মুক্তি সংঘ           খ) আনন্দ সংঘ
গ) দিপালী ছাত্রীসংঘ   ঘ) সেবা সংঘ

৬। ১৯৩০-৩১ খ্রিস্টাব্দে ডিনামাইট ষড়যন্ত্রে যিনি সক্রিয় ভূমিকা নিয়েছিলেন,
ক) লক্ষ্মী স্বামীনাথন
খ) কল্পনা দত্ত।
গ) লীলা নাগ
ঘ) প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার

৭। যিনি বাংলার ‘অগ্নিকন্যা’ নামে খ্যাত ছিলেন
ক) মাতঙ্গিনী হাজরা খ) কল্পনা দত্ত।
গ) বীণা দাস          ঘ) প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার

৮। যাকে বিপ্লববাদের জননী বলা হয় –
ক) মাতঙ্গিনী হাজরা, খ) ভগিনী নিবেদিতা
গ) মাদাম কামা        ঘ) সরােজিনী নাইডু

৯। কোন প্রতিষ্ঠানকে ‘গােলদিঘির গােলামখানা’ বলা হত –
ক) কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়কে
খ) যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়কে
গ) ফোর্টউইলিয়াম কলেজকে
ঘ) এশিয়াটিক সােসাইটিকে

১০। লাবণ্যলতা চন্দ যে আন্দোলনের নেত্রী ছিলেন।
ক) বঙ্গভঙ্গবিরােধী আন্দোলন
খ) অসহযােগ আন্দোলন
গ) আইনঅমান্য আন্দোলন
ঘ) ভারতছাড়াে আন্দোলন

১১। ঢাকার মুক্তি সংঘ’-এর সংগঠক ছিলেন-

ক) দীনেশ গুপ্ত   খ) হেমচন্দ্র ঘোষ
গ) মৃগেন দত্ত    ঘ) মাস্টারদা সূর্যসেন

১২। স্ট্যানলি জ্যাকসনকে সমাবর্তন উৎসবে যিনি গুলি করেছিলেন –
ক) কল্পনা দত্ত              খ) বীণা দাস
গ) প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার   ঘ) লীলা নাগ

১৩। রাইটার্স বিল্ডিং অভিযানে বিনয়-বাদল-দীনেশ যাকে হত্যা করেছিলেন –
ক) হাডসনকে   খ) কিংসফোর্ডকে
গ) সিম্পসনকে  ঘ) লােম্যানকে

১৪। রশিদ আলি দিবস পালিত হয় –
ক) বােম্বাইতে
খ) কলকাতায়
গ) ঢাকায়
ঘ) দিল্লিতে

১৫। প্রাচীন ভারতে অস্পৃশ্যদের বলা হত –
ক) তৃতীয় বর্ণ   খ) চতুর্থ গােষ্ঠী
গ) পঞ্চম বর্ণ   ঘ) পঞ্চম জাতি

১৬। ‘গুলামগিরি’ গ্রন্থের রচয়িতা হলেন
ক) বি আর আম্বেদকর   খ) পি সি যােশী
গ) মহাত্মা গান্ধি           ঘ) জ্যোতিবা ফুলে

১৭। “ভাইকম সত্যাগ্রহ সংঘটিত হয়েছিল –
ক) কেরলে            খ) মালাবার উপকূলে
গ) তামিলনাড়ুতে     ঘ) অন্ধ্রপ্রদেশে

১৮। আম্বেদকর যে সম্প্রদায়ের মানুষ ছিলেন –
ক) নমঃশুদ্র    খ) ইজাভা
গ) মাহার        ঘ) চামার।

১৯। নমঃশূদ্রদের প্রতিষ্ঠিত সংগঠন হল –
ক) মতুয়া মহাসংঘ
খ) দলিত সংঘ
গ) দলিত সংগঠন
ঘ) নমঃশূদ্র সমিতি

২০। বেঙ্গল নমঃশূদ্র অ্যাসােসিয়েশন’ প্রতিষ্ঠিত হয় –
ক) ১৮৬০ খ্রিস্টাব্দে    খ) ১৮৬২ খ্রিস্টাব্দে
গ) ১৮৮০ খ্রিস্টাব্দে     ঘ) ১৯১২ খ্রিস্টাব্দে

উ: ১(খ), ২(খ), ৩(ক), ৪(খ), ৫(গ), ৬(খ), ৭(খ), ৮(গ), ৯(ক), ১০(গ), ১১(খ), ১২(খ), ১৩(গ), ১৪(খ), ১৫(ঘ), ১৬(ঘ), ১৭(ক), ১৮(গ), ১৯(ক), ২০(ঘ)।

শূন্যস্থান পূরণ করাে:

১। দ্য হিন্দু পত্রিকার মাধ্যমে গান্ধিজি অসহযােগ আন্দোলনে নারীদের যােগদানের আহ্বান জানিয়েছিলেন।
২। রাষ্ট্রীয় স্ত্রী সংঘ এর সভাপতি ছিলেন সরোজিনী নাইডু।
৩। ভারত স্ত্রী মহামণ্ডল গঠিত হয় ১৯১০  খ্রিস্টাব্দে।

৪। ছেড়ে দাও’রেশমি চুড়ি’ গানটির রচয়িতা হলেন কবি মুকুন্দ দাস।

৫। ১৯০৩ খ্রিস্টাব্দে সরলা দেবী চৌধুরানী লক্ষ্মীর ভাণ্ডার স্থাপন করেন।
৬। নারীদের ভােটাধিকার অর্জনে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন সরােজিনী নাইডু।
৭। রামেন্দ্রসুন্দর ত্রিবেদীর ‘বঙ্গলক্ষ্মীর ব্রতকথা ‘যিনি পাঠ করেছিলেন গিরিজা সুন্দরী।
৮। বাসন্তী দেবী বঙ্গীয় প্রাদেশিক কংগ্রেসের সভাপতি হয়েছিলেন ১৯২১ খ্রিস্টাব্দে, খ্রিস্টাব্দে।

৯।  সবরমতী আশ্রম থেকে গান্ধিজির ডান্ডি অভিযান শুরু হয়।
১০। ভারতছাড়াে আন্দোলনের সময় মেদিনীপুর জেলায় গঠিত হয় ভগিনী সেনা
১১। ভারতছাড়াে আন্দোলনের একজন মুসলিম নেত্রী ছিলেন রাজিয়া খাতুন।
১২। স্বদেশ বান্ধব সমিতি গড়ে তুলেছিলেন অশ্বিনীকুমার দত্ত।
১৩। সতীশচন্দ্র সামন্ত -এর নেতৃত্বে তাম্রলিপ্ত জাতীয় সরকার গড়ে ওঠে।
১৪। স্বরাজ্য তহবিল গড়ে ওঠে অসহযোগ, আন্দোলনের সময়।
১৫। নারী সত্যাগ্রহ সমিতি তৈরি হয়েছিল অসহযােগ আন্দোলনের সময় ।
১৬। নারী সত্যাগ্রহ সমিতি তৈরি হয়েছিল কলকাতা শহরে।
১৭। সত্য বালা দেবী বীরভূমে আইন অমান্য আন্দোলনে নেতৃত্ব দেন।
১৮। আইন-অমান্য আন্দোলনের একজন দলিত নেত্রী হলেন আইন অমান্য।
১৯। চট্টগ্রাম অস্ত্রাগার লুণ্ঠনের সময় গান কটন’ তৈরিতে সচেষ্ট হয়েছিলেন বিপ্লবী কল্পনা দত্ত।
২০। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কল্পনা দত্তকে অগ্নিকন্যা, নামে অভিহিত করেন।
২১। চট্টগ্রাম অস্ত্রাগার লুণ্ঠনের সময় কল্পনা দত্তের সঙ্গী প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার, ছিলেন।
২২। প্রতিক্রিয়াশীল বিশ্ববিদ্যালয় আইন পাশ হয়েছিল ১৯০৪ খ্রিস্টাব্দে।
২৩। প্রতিক্রিয়াশীল বিশ্ববিদ্যালয় আইন পাস করেছিলেন লর্ড কার্জন।
২৪। জালালাবাদ পাহাড়ে চট্টগ্রাম অস্ত্রাগার লুণ্ঠনের পর বিপ্লবীরা আশ্রয় নিয়েছিলেন।
২৫। আলি ভ্রাতৃদ্বয় নামে পরিচিত ছিলেন মােহাম্মদ আলিশওকত আলি,
২৬। সত্যশােধক সমাজ গড়ে ওঠে জ্যোতিবা ফুলের উদ্যোগে।
২৭। সত্যশােধক সমাজ গড়ে ওঠে ১৮৭৩ খ্রিস্টাব্দে।
২৮। ভারতের নির্বাচনে তপশিলি জাতির আসন সংরক্ষণ হয় পুনা চুক্তি চুক্তির দ্বারা।
২৯। মতুয়া মহাসংঘের সংগঠক ছিলেন হরিচাঁদ ঠাকুর।
৩০। গুরুচাঁদ ঠাকুরের মৃত্যুর পর নমঃশূদ্র আন্দোলনের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন প্রমথরঞ্জন ঠাকুর।
৩১। মতুয়া মহাসংঘের বর্তমান প্রধান কার্যালয় উত্তর ২৪ পরগণার  ঠাকুরনগরে।

উ: ১। দ্য হিন্দু, ২। সরোজিনী নাইডু, ৩। ১৯১০ খ্রিস্টাব্দে, ৪। কবি মুকুন্দ দাস, ৫। ১৯০৩ খ্রিস্টাব্দে, ৬।
সরােজিনী নাইডু, ৭। গিরিজা সুন্দরী, ৮। ১৯২১ খ্রিস্টাব্দে, ৯। সবরমতী, ১০। ভগিনী সেনা, ১১। রাজিয়া খাতুন, ১২। অশ্বিনীকুমার দত্ত, ১৩। সতীশচন্দ্র সামন্ত, ১৪। অসহযোগ, ১৫। অসহযােগ, ১৬। কলকাতা, ১৭। আইন অমান্য, ১৮। সােনালী সােলাঙ্কি, ১৯। কল্পনা দত্ত, ২০। অগ্নিকন্যা, ২১। প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার, ২২। ১৯০৪ খ্রিস্টাব্দে, ২৩। লর্ড কার্জন, ২৪। জালালাবাদ, ২৫। মােহাম্মদ আলি, শওকত আলি, ২৬। জ্যোতিবা ফুলের, ২৭। ১৮৭৩ খ্রিস্টাব্দে, ২৮। পুনা চুক্তি, ২৯। হরিচাঁদ ঠাকুর, ৩০। প্রমথরঞ্জন ঠাকুর, ৩১। ঠাকুরনগরে।

দ্বিতীয় অধ্যায়

১. উনিশ শতকে বাংলায় ‘নবজাগরণ’ ধারণার ব্যবহার-বিষয়ক বিতর্ক সম্পর্কে আলোচনা করো।
অথবা
উনিশ শতকে ‘বাংলার নবজাগরণ’ বলতে কী বোঝো? এই নবজাগরণের চরিত্র বা প্রকৃতি সম্পর্কে আলোচনা করো।

২. নব্যবঙ্গ বা ইয়ং বেঙ্গল কাদের বলা হয়? উনিশ শতকে বাংলার ইতিহাসে নব্যবঙ্গদের অবদান উল্লেখ করো।

তৃতীয় অধ্যায়

১. নীল বিদ্রোহ কারণ‌ ও নীল বিদ্রোহের গুরুত্ব আলোচনা করো?
২. সাঁওতাল বিদ্রোহের কারণ ও সাঁওতাল বিদ্রোহের গুরুত্ব আলোচনা করো।

চতুর্থ অধ্যায়

১. টীকা: মহারানির ঘোষণাপত্র (১৮৫৮ খ্রি.)।
অথবা, মহারানির ঘোষণাপত্রে (১৮৫৮ খ্রি.) কী বলা হয়?
২. ১৮৫৭ খ্রিস্টাব্দের মহাবিদ্রোহের প্রকৃতি বা চরিত্র বা স্বরূপ সম্পর্কে আলোচনা করো।

পঞ্চম অধ্যায়

১. বিজ্ঞান চর্চায় বসু বিজ্ঞান মন্দির ও কলকাতার বিজ্ঞান কলেজের অবদান উল্লেখ করো।

close