শিখনের উপাদান বিষয়ে সংক্ষিপ্ত টীকা লেখাে। শিখনের আধুনিক প্রকারভেদগুলি আলােচনা করাে। (4+4)

education উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বিজ্ঞান বিষয় উচ্চমাধ্যমিক''শিক্ষা বিজ্ঞান বিশ্বের বড় প্রশ্ন এবং উত্তর'' অধ্যায়(1) "শিখন(Learning)"

উত্তর

শিখনের উপাদান

শিখন হল অভিজ্ঞতার মধ্য দিয়ে আচরণের ক্রম-পরিবর্তন। এটি একটি জটিল মানসিক প্রক্রিয়া। পরিবর্তনশীল পরিবেশের সঙ্গে সার্থকভাবে মানিয়ে নেওয়ার প্রয়ােজনে, নতুন নতুন অবস্থার। সঙ্গে অভিযােজনের জন্য শিখন বিশেষভাবে প্রয়ােজন। আমাদের ব্যক্তিত্ব, আচার-আচরণ, চিন্তন, স্বভাব, জ্ঞান সবই শিখনের ফল।

শিখনের বৈশিষ্ট্যগুলি পর্যালােচনা করলে দেখা যায়, শিখন কয়েকটি উপাদানের দ্বারা প্রভাবিত হয়। ওই সমস্ত উপাদানকে শিখন সহায়ক উপাদান বলা হয়। এখানে পাঁচটি গুরুত্বপূর্ণ শিখন সহায়ক উপাদানকে নিয়ে আলােচনা করা হল—

1.) পরিণমন: পরিণমন হল এমন একটি প্রক্রিয়া যার দ্বারা জন্মগত সম্ভাবনাগুলির স্বতঃস্ফূর্ত বৃদ্ধি ও ক্রমবিকাশের মধ্য দিয়ে ব্যক্তির আচরণের গুণগত ও পরিমাণগত পরিবর্তন হয়। এটি একটি স্বতঃস্ফূর্ত প্রক্রিয়া।

2.) আগ্রহ বা অনুরাগ: আগ্রহ বা অনুরাগ হল ব্যক্তির এমন। একটি অভ্যন্তরীণ মানসিক অবস্থা যা ব্যক্তিকে কোনাে বস্তু, বিষয় বা কাজের প্রতি মনােযােগী করে তােলে।

3.) মনোযোগ: মনােযােগ এমন একটি মানসিক প্রক্রিয়া। যার মাধ্যমে ব্যক্তি কোনাে একটি বিষয় সম্পর্কে সুস্পষ্ট। জ্ঞান লাভের জন্য বিষয়টির ওপর নিজের চেতনাকে নিবিষ্ট করে।

4.) ক্ষমতা বা সামর্থ্য: মানুষের যাবতীয় কর্ম সম্পাদনের জন্য যে উপাদানটি বিশেষভাবে সহায়ক হয় তা হল ক্ষমতা বা সামর্থ্য।

5.) প্রেষণা: প্রেষণা কর্মের উৎস। এটি এক ধরনের তাড়নার অনুভূতি বা তাগিদ যা আমাদের কাজ করতে বাধ্য করে।

শিখনের আধুনিক প্রকারভেদ

শিখন প্রধানত দুপ্রকার। যথা—{1} মনুষ্যেতর প্রাণীর শিখন (Animal Learning) এবং {2} মানুষের শিখন (Human Learning)। মানুষের শিখনকে আচরণের বিভিন্ন দিকের পরিপ্রেক্ষিতে তিনটি বিভাগে ভাগ করা হয়েছে। এই বিভাগ। তিনটি হল—i) প্রজ্ঞামূলক শিখন (Cognitive Learning), (ii) দক্ষতামূলক শিখন (Skill Learning), (iii) অনুভূতিমূলক শিখন (Affective Learning)।

1.) প্রজ্ঞামূলক বা বৌদ্ধিক শিখন: যে শিখন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ব্যক্তির মধ্যে কোনাে বিষয়ে অভিজ্ঞতা বা ধারণা। জন্মায়, তাকেই প্রজ্ঞামূলক শিখন বলে। এই ধারণা অনুযায়ী শিখন হল শিক্ষার্থীর মানসিক সংগঠন বা বৌদ্ধিক সংগঠনের প্রক্রিয়া।

2.) দক্ষতামূলক শিখন: দক্ষতামূলক শিখনের মূল প্রক্রিয়া হল। অনুশীলন। অনুশীলনের ফলে ব্যক্তির স্নায়বিক বাধা (Synaptic resistance) হ্রাস পায় এবং দক্ষতার শিখন ঘটে। তবে দক্ষতামূলক শিখন কেবলমাত্র যান্ত্রিক অনুশীলনের মাধ্যমে সংঘটিত হয় না। শিক্ষার্থীর ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা তার দক্ষতার শিখনে সহায়ক হয়।3.) অনুভূতিমূলক বা প্ৰক্ষোভিক শিখন: যে শিখনের মাধ্যমে ব্যক্তির ক্ষোভিক প্রতিক্রিয়ার বিকাশ ও সমন্বয় ঘটে এবং আদর্শ, মনােভাব, মূল্যবােধ ইত্যাদি গড়ে ওঠে তাকে অনুভূতিমূলক বা প্রাক্ষোভিক শিখন বলা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *